নিজস্বপ্রতিবেদক:
মৌলভীবাজারের বড়লেখায়।বড়লেখা থানা পুলিশ আল-আমিন নামে ৭০ দিনের শিশুপুত্র হত্যার অভিযোগে বাবা আব্দুল মতিনকে সোমবার বিকেলে আটক করেছে পুলিশ। তিনি উপজেলার পূর্ব-দোয়ালিয়া (রামকটার টিলা) গ্রামের নিমার আলীর ছেলে।
সোমবার বিকেলে তাকে আটক করা হয়। পুলিশ নিহত শিশুর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।
থানা পুলিশ, নিহত শিশুর মা লাবনী আক্তার ও মামা জাবেদ আহমদের অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, আব্দুল মতিন (৩২) ঘরে স্ত্রী রেখে একাধিক বিয়ে করেছেন। এর জের ধরে লাবনী আক্তার ও তার স্বামী আব্দুল মতিনের দাম্পত্য কলহ চলছিল। রোববার বিকেলে আব্দুল মতিন ও স্ত্রী লাবনী আক্তারের মধ্যে ঝগড়াঝাটি চলছিল। আব্দুল মতিন স্ত্রীকে মারধরের একপর্যায়ে ৭০ দিনের শিশুপুত্র আল-আমিনের উপরও আঘাত পড়ে। সন্ধ্যায় শিশুপুত্রসহ লাবনীকে বাবার বাড়ির লোকজন তাদের বাড়িতে নিয়ে যান। সোমবার সকালে শিশুপুত্রের শরীর খারাপ করলে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
বড়লেখা থানার ওসি (তদন্ত) মো. ফরিদ উদ্দিন জানান, শিশুপুত্র হত্যার অভিযোগে অভিযান চালিয়ে সোমবার বিকেলে তিনটার দিকে পার্শ্ববর্তী বাড়ি থেকে আব্দুল মতিনকে পুলিশ আটক করে। এসময় একজন পুলিশ সদস্য আহত হন। নিহত শিশুর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদেন্তর জন্য মর্গে পাঠিয়েছেন। এব্যাপারে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *